Today: Mon, Jun 18, 2018

দূষণে দুষিত ফালাকাটার জনজীবন, উদাসীন প্রশাসন

অরুনাংশু মৈত্র (টী.এন.আই ফালাকাটা) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টী.এন.আই, ফালাকাটা, ২৮শে মে, ২০১৮: চারিদিকে দূষণ, ছড়াচ্ছে রোগের জীবাণু, দূষিত হচ্ছে পরিবেশ, আতঙ্কে জনগণ, প্রচার চালাচ্ছে প্রশাসন, উদ্যোগ গড়ন হয়েছে স্বচ্ছ ভারত অভিযান, নির্মল বাংলা, শিক্ষিত হচ্ছি আমরা জনগণ। কিন্তু অশিক্ষিতের মতো দূষণের পরিবেশ তৈরি করছে জনগণ, প্রশাসন উদ্যোগ নিয়ে পরিবেশ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করার কিছুদিনের মধ্যেই নোংরা আবর্জনা যত্রতত্র ফেলে পরিবেশ পুনরায় দূষিত করছে। শুধু প্রশাসন উদ্যোগ নিলেই হবেনা, সচেতন হতে হবে নিজেদেরকে। গ্রাম পঞ্চায়েত উদ্যোগ নিয়ে পরিষ্কার করে দিল, কিন্তু সেই স্থানে যাতে পুনরায় নোংরা আবর্জনা ফেলে দূষিত না হয় সে দিক লক্ষ রাখতে হবে। ফালাকাটা পোষ্ট অফিস মোড়ের যেখানে পানীয় জল নেবার জন্য দুটি কল রয়েছে, একটি সরকারি ও একটি ব্যাবসায়ীরা বসিয়েছেন টিউবওয়েল, সেখানেই দিনের পর দিন জমছে নোংরা আবর্জনার স্তূপ। এই প্রসঙ্গে জানতে চাইলে এভাবেই বললেন ফালাকাটা ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান পূরবী অধিকারী। তিনি আর বলেন, ওই জায়গায় ফালাকাটা ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের পক্ষথেকে বেশ কয়েকবার উদ্যোগ গ্রহন করে পরিষ্কার করে ওখানকার ব্যাবসায়ীদের সচেতন করে বলে দেওয়া হয়েছে এখানে যেন নোংরা আবর্জনা না ফেলে, পরিষ্কার পরিছন্ন রাখতে, কিন্তু জেইকে সেই কে শোনে কার কথা। সেজন্য আগে নিজেকে সচেতন হতে হবে তবেই পরিবেশ নির্মল হবে। এবিষয়ে ব্যাবসায়ীরা বলেন, নোংরা আবর্জনার ফেলার মতো ফালাকাটা তে কোন ডাম্পিং গ্রাউন্ড নেই, আমরা প্রশাসন কে বারংবার জানিয়েছি ফালাকাটা তে ডাম্পিং গ্রাউন্ড বানাতে, ফালাকাটার যত্রতত্র আবর্জনার স্তূপ হয়ে থাকে, সেগুলি ফেলবার কোন সুনির্দিষ্ট জায়গা নেই কিন্তু প্রশাসন আজ পর্যন্ত এব্যাপারে কোন উদ্যোগ গ্রহন করে নি।

ছবিঃ অরুনাংশু মৈত্র (টী.এন.আই)

Be the first to comment on "দূষণে দুষিত ফালাকাটার জনজীবন, উদাসীন প্রশাসন"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*